সাদিয়া জাহান প্রভা । মডেল ও অভিনেত্রী

সাদিয়া জাহান প্রভা একজন বাংলাদেশী মডেল এবং অভিনেত্রী। মডেলিংয়ের মাধ্যমে তার মিডিয়া জগতে আগমন ঘটে। টেলিভিশন বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করার পর তিনি কয়েকটি খণ্ড নাটকে অভিনয় করে খুব অল্প সময়ের মধ্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠেন। কিন্তু বিয়ে এবং বিচ্ছেদের কারণে কিছু সময়ের জন্য তার অভিনয় ও কর্মজীবন বাধাপ্রাপ্ত হয়।

সাদিয়া জাহান প্রভা । মডেল ও অভিনেত্রী

প্রাথমিক জীবন

প্রভা ১৩ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৮ সালে বাংলাদেশের শরীয়তপুর জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তার মা কল্পনা রহমান একজন প্রাক্তন উচ্চাঙ্গ সঙ্গীত শিল্পী এবং বাবা মজিবুর রহমান একজন পেশাজীবী। তার দুই বোন ও এক ভাই রয়েছে। তিনি ২০০৬ সালে মোহাম্মদপুর প্রিপারেটরি কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করেন। এরপর তিনি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় এর বিবিএ কোর্সে ভর্তি হন কিন্তু ব্যক্তিগত কারণে তা শেষ করতে অসমর্থ হন। পরবর্তীতে ২০১১ সালে তিনি শান্ত-মরিয়ম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজির অধীনে ফ্যাশন ডিজাইনের উপর পড়ালেখা শুরু করেন।

সাদিয়া জাহান প্রভা । মডেল ও অভিনেত্রী

কর্মজীবন

সাদিয়া জাহান প্রভা ২০০৫ সাল থেকে মডেলিং এর মাধ্যমে অভিনয় জগতে প্রবেশ করেন। তার জনপ্রিয় বিজ্ঞাপনগুলোর মাঝে রয়েছে মেরিল, তিব্বত, পন্ডস, বাংলালিংক, জুঁই তেল ইত্যাদি। প্রভা অনেক জনপ্রিয় টেলিফিল্ম, নাটক, মডেলিং এবং বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন তারমধ্যে বেশ কিছু নাটকে অভিনয় করে জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। তিনি ভার্সন জেড, হানিমুন, ধুপ ছায়া, লাকি থার্টিন, খুনসুটি ইত্যাদি নাটকে অভিনয় করেছেন। তবে এখনো পর্যন্ত কোন চলচ্চিত্রে কাজ করেননি।

প্রভা তার অভিনয় জীবনে সাময়িক বিরতি আনেন এবং ২০১১ সালের ১৯শে ডিসেম্বর বহুজাতিক কোম্পানি গ্রামীণফোনের কর্মকর্তা মাহমুদ শান্তকে বিয়ে করেন। ২০১৪ সালে প্রভা ও মাহমুদের বিচ্ছেদ ঘটে। প্রায় দুই বছর অভিনয় থেকে দূরে থাকার পর ২০১৩ সালের মার্চে রিজওয়ান খান রচিত ও কায়সার আহমেদ পরিচালিত খণ্ড নাটক ‘প্রণয়িনী’ তে অভিনয়ের মাধ্যমে আবার অভিনয়ে ফেরত আসেন।

সাদিয়া জাহান প্রভা । মডেল ও অভিনেত্রী

 

ব্যক্তিগত জীবন

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নকালে সহপাঠী রাজিব আহমেদের সঙ্গে প্রভা ভালবাসার সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন এবং ২০১০ সালের ১৬ই এপ্রিল তাদের বাগদান সম্পন্ন হয়। বাগদত্তা অবস্থায়ই প্রভা ২০১০ সালের ১৮ই আগস্ট টিভি অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বকে বিয়ে করেন। রাজিব এতে ক্ষুব্ধ হয়ে প্রভার সঙ্গে তার একান্ত ব্যক্তিগত ভিডিও প্রকাশ করেন। এর ফলে প্রভার ব্যক্তিগত ও পেশাগত জীবন ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং এর রেশ ধরে ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১১ সালে অপূর্বর সাথে প্রভার বিবাহবিচ্ছেদ হয়।

আরও দেখুনঃ

মন্তব্য করুন