শীলা আহমেদ । বাংলাদেশী অভিনেত্রী

শীলা আহমেদ একজন বাংলাদেশী অভিনেত্রী। তিনি কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ এর কন্যা। তার অভিনয় জীবন শুরু হয় বহুব্রীহি নাটকে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে। পরবর্তীতে তিনি কোথাও কেউ নেই (১৯৯০), প্রিয় পদরেখা (১৯৯২), হিমু (১৯৯৪) ও ওইজা বোর্ড (১৯৯৫) টেলিভিশন নাটকে অভিনয় করেন। ১৯৯৪ সালে আগুনের পরশমণি ছবিতে অসাধারণ অভিনয়ের স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি শ্রেষ্ঠ শিশু শিল্পী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। তার অভিনীত সর্বাধিক জনপ্রিয় টেলিভিশন নাটক হল আজ রবিবার।

শীলা আহমেদ । বাংলাদেশী অভিনেত্রী

প্রাথমিক জীবন১

শীলা ১৯৮২ সালে ৯ সেপ্টেম্বর ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা হুমায়ূন আহমেদ (১৯৪৮-২০১২) ছিলেন একজন খ্যাতনামা কথাসাহিত্যিক এবং মাতা গুলতেকিন খানও একজন লেখক। চার ভাইবোনের মধ্যে শীলা দ্বিতীয়। তার অন্য দুই বোন বিপাশা আহমেদ ও নোভা আহমেদ, এবং ছোট ভাই নুহাশ হুমায়ুন।কথাসাহিত্যিক ও শিক্ষাবিদ মুহম্মদ জাফর ইকবাল এবং রম্য লেখক আহসান হাবীব তার চাচা।

শীলা আহমেদ শৈশব কাল থেকেই অভিনয়ে জড়িয়ে পড়েন এবং অনেক জনপ্রিয় নাটকে অভিনয় করেছেন। তিনি পড়াশুনা করেছিলেন হলিক্রস গার্লস কলেজে।

শীলা আহমেদ । বাংলাদেশী অভিনেত্রী

 

অভিনয় জীবন

শীলা আহমেদ টেলিভিশনে আগমন করেছিলেন বহুব্রীহি নাটকে শিশু অভিনেত্রী চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে। কোথাও কেউ নেই নাটকেও অভিনয় করেছিলেন তিনি। এ নাটকে মিমির ছোট বোন হিসেবেও তিনি পরিচিত। এ ছাড়াও বিপাশা হায়াতের সাথে ওইজা বোর্ড নাটকে তার অভিনয় এখনও দর্শকের মনে দাগ কেটে আছে। নাটকের পাশাপাশি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন। মাত্র একটা সিনেমায় অভিনয় করেছেন শীলা, বাবার পরিচালিত আগুনের পরশমণি। সেখানে আসাদুজ্জামান নূর, বিপাশা হায়াত, আবুল হায়াতদের মতো তুখোড় অভিনেতা-অভিনেত্রীদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে অভিনয় করেছিলেন কিশোরী মেয়েটা, নিজের প্রতিভা দিয়ে সবাইকে তাক লাগিয়ে জিতে নিয়েছিলেন শিশুশিল্পী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও। একই বছর তিনি হিমু টিভি নাটকে অভিনয় করেন। তার সর্বাধিক জনপ্রিয় কাজ হল আজ রবিবার (১৯৯৮) টেলিভিশন নাটকে কংকা চরিত্র। এই নাটকের পর থেকে তাকে আর অভিনয়ে দেখা যায়নি।

শীলা আহমেদ । বাংলাদেশী অভিনেত্রী

ব্যক্তিগত জীবন

শীলা ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ও কলাম লেখক আসিফ নজরুলের সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। এর পূর্বে তিনি আরেকটি বিয়ে করেছিলেন। সেই সংসারে তার দুটি সন্তান ছিল। অন্যদিকে আসিফ নজরুল এর পূর্বে অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচীকে বিয়ে করেছিলেন। প্রাচীর সাথে বিবাহবিচ্ছেদের পর নজরুল শীলাকে বিয়ে করেন। ২০১৫ সালে ৭ মে নজরুল-শীলা দম্পতির একটি কন্যা সন্তান জন্মগ্রহণ করে।

পুরস্কার

১৯৯৪ সালে  শ্রেষ্ঠ শিশু শিল্পী ( আগুনের পরশমণি ) হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন ।

আরও দেখুনঃ

মন্তব্য করুন