আলিশা প্রধান । বাঙালি মডেল, অভিনেত্রী এবং টেলিভিশন উপস্থাপক

আলিশা প্রধান বাংলাদেশের সুপরিচিত মডেল, উপস্থাপক এবং অভিনেত্রী। মূলত উপস্থাপনা ও মডেলিং দিয়ে জনপ্রিয়তা অর্জন করলেও চাষী নজরুল ইসলাম পরিচালিত চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি চলচ্চিত্র নায়িকা হিসেবে অভিষিক্ত হন। অবশ্য এর আগে তিনি এইতো ভালোবাসা চলচ্চিত্রে অতিথি চরিত্রে অভিনয় করেন।

আলিশা প্রধান । বাঙালি মডেল, অভিনেত্রী এবং টেলিভিশন উপস্থাপক

 শৈশব

আলিশা প্রধানের জন্ম ঢাকার উত্তরায়।তিন ভাইবোনের মধ্যে আলিশা মেঝো। তার বাবা মনির প্রধান ও মা হোসনা প্রধান দুজনই ব্যবসায়ী। তবে শৈশব কেটেছে মালিবাগে। আট বছর বয়স থেকেই দুরন্তপনা করে বেড়াতেন পুরো এলাকা জুড়ে। ক্রিকেট খেলতেন এলাকার ‘বড়ভাই’দের সঙ্গে। ভিডিও গেমের দোকানে গিয়ে খেলতেন মোস্তফা ও সামুরাই গেমগুলো।

শুরুতে স্কলাসটিকায় পড়লেও পরে ভর্তি হন উইলস লিটল ফ্লাওয়ারে। বাসা পরিবর্তন করে পরিবারও চলে আসে তখন সেগুনবাগিচায়। কারণ তার বাবার বায়িং হাউসের অফিস পল্টন, আর তার স্কুল কাকরাইলে।ঢাকাতেই তিনি ‘ও’ এবং ‘এ’ লেভেল সম্পন্ন করেছেন। তাদের চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের নাম কার্নিভাল মোশন পিকচার্স।

আলিশা প্রধান । বাঙালি মডেল, অভিনেত্রী এবং টেলিভিশন উপস্থাপক

কর্মজীবন

২০০৮ সালে একটি বিজ্ঞাপনচিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে শোবিজে পা রাখেন আলিশা প্রধান।বাবা মার ইচ্ছাতেই তিনি এই বিজ্ঞাপনে অভিনয় করেন। বিজ্ঞাপনটি প্রচারের পর বেশ সাড়া পান। পরিবারের সঙ্গে ২০১০ সালে মুম্বাই যান। সেখানে আমির খান ও কারিনা কাপুরের শুটিং দেখে আলিশার মনেও অভিনয়ের আগ্রহ তৈরি হয়। চলচ্চিত্রাভিনেতা রিয়াজের সঙ্গে ইউরোকোলার বিজ্ঞাপনচিত্রটি তাকে এনে দেয় তুমুল পরিচিতি। ভারতের রামুজি ফিল্ম সিটিতে ছিল ওটার শুটিং। সেখানে গিয়ে চমকে যান। তখনই সিদ্ধান্ত নেন, অভিনেত্রী হবেন। দেশে ফিরে নাটকে অভিনয় শুরু করেন। মায়ের সহযোগিতায় গড়ে তোলেন প্রোডাকশন হাউসও। তিন বছর ছিলেন নাটক নিয়ে। এ সময়ে বেশ কিছু নাটক ও টেলিছবিতে অভিনয় করেন।

এরইমধ্যে তার ক্যারিয়ারে যোগ হয়েছে ত্রিশটিরও বেশি ধারাবাহিক এবং এক ঘণ্টার নাটক। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো ‘স্বপ্নচূড়া’, ‘ফার্স্ট ডেট’, ‘দহন’, ‘অনু কিংবা পরমাণু’, ‘ব্যাচেলর ভাড়াটিয়া’, ‘মানুষ বদল’, ‘তিন বন্ধু’ প্রভৃতি।

চ্যানেল আই, আরটিভিসহ বেশ কয়েকটি টেলিভিশন চ্যানেলের অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেছেন তিনি। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের দ্বিতীয় আসরেও তিনি উপস্থাপনা করেন ।

আলিশা প্রধান । বাঙালি মডেল, অভিনেত্রী এবং টেলিভিশন উপস্থাপক

২০১৪ সালে চাষী নজরুল ইসলামের ‘ভুল যদি হয়’ ছবিতে অভিনয় করে সিনেমায় পা রাখেন আলিশা। এরপর একই পরিচালকের ‘অন্তরঙ্গ’ ছবিতে অভিনয় করেন। ২০১৬ সালে মুক্তি পায় তার অভিনীত সর্বশেষ ছবি ‘অজান্তে ভালোবাসা’।

কিন্তু চলচ্চিত্রের নানা ‘রাজনীতি’র শিকার হয়ে মুখ ফিরিয়ে নেন আলিশা।  শুধু চলচ্চিত্রে অভিনয়ে আগ্রহের কারণে তার প্রায় তিন কোটি টাকা ‘নষ্ট’ হয়। তারপরই সিদ্ধান্ত পাল্টে ফেলেন। মাঝে পড়াশোনারও ব্যাঘাত ঘটে। তাই এবার সোজা চলে যান আমেরিকায়। আইটি বিষয়ে করেন ডিপ্লোমা। ২০১৫ সালে আইটি বিষয়ক সামিটে অংশও নেন। তারপর সেই পাঠ শেষে, ২০১৭ সালে দেশে ফেরেন।

পুরস্কার

  • (দেবু অ্যাওয়ার্ড)-২০০৯ সালে মডেল এবং ২০১০ সালে অভিনেত্রী
  • বাচসাস- ২০০৯ সালে মডেল এবং ২০১০ সালে অভিনেত্রী
  • CJFB পুরস্কার- ২০০৯ সালে মডেল এবং ২০১০ সালে অভিনেত্রী
  • বাবিসাস পুরস্কার- ২০০৯ সালে মডেল এবং ২০১০ সালে অভিনেত্রী
  • মেজাব পুরস্কার- ২০০৯ সালে মডেল এবং ২০১০ সালে অভিনেত্রী
  • এটিএন বিনোদন পুরস্কার- ২০০৯ সালে মডেল এবং ২০১০ সালে অভিনেত্রী
  • স্টারডম পুরস্কার- ২০০৯ সালে মডেল এবং ২০১০ সালে অভিনেত্রী
  • ট্রাব পুরস্কার- ২০০৯ সালে মডেল এবং ২০১০ সালে অভিনেত্রী

আরও দেখুনঃ

মন্তব্য করুন