আরিফিন শুভ । বাঙালি চলচ্চিত্র অভিনেতা, প্রযোজক ও গায়ক

আরিফিন শুভ  বাংলাদেশের একজন চলচ্চিত্র অভিনেতা, প্রযোজক ও গায়ক। মডেলিং দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু, ছিলেন রেডিও জকিও। টিভি নাটকের সফলতায় তিনি নাম লেখান চলচ্চিত্রে। বর্তমান সময়ে তিনি ঢাকাই সিনেমার অন্যতম জনপ্রিয় চিত্রনায়ক।

পর্দায় নিজের চরিত্র নিয়ে খুবই সচেতন আরিফিন শুভর অ্যাকশনধর্মী চলচ্চিত্রে ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। তাঁর উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রগুলো তারকাঁটা, ছুঁয়ে দিলে মন, মুসাফির, ঢাকা অ্যাটাক, আহারে, সাপলুডু, মিশন এক্সট্রিম এর মতো চলচ্চিত্র।জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত এই চিত্রনায়ক বাংলাদেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনীনির্ভর ‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’ সিনেমার কেন্দ্রীয় মুজিব চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এটাই ঢাকাই সিনেমার ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বাজেটের সিনেমা।

আরিফিন শুভ । বাঙালি চলচ্চিত্র অভিনেতা, প্রযোজক ও গায়ক

প্রাথমিক জীবন

আরিফিন শুভ ১৯৮২ সালের ২ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের ময়মনসিংহ বিভাগীয় জেলার ভালুকা উপজেলার ৮নং ডাকাতিয়া ইউনিউনের ৫নং ওয়ার্ড আংগারগাড়া গ্রামে এক রক্ষণশীল মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।আংগারগাড়া গ্রামে পৈতৃক নিবাস হলেও তাঁর জন্ম ময়মনসিংহ শহরে। ময়মনসিংহ জেলা স্কুলে পড়াশোনা এবং বেড়ে ওঠাও ময়মনসিংহ শহরেই। বাবা এস এম শামসুল হক ছিলেন সরকারি কর্মকর্তা, মা গৃহিণী। শুভ’রা দুই ভাই, শুভ ছোট, বড় ভাই মাহমুদুল খান সজীব।

অভিনয় জীবন

আরিফিন শুভ ২০০৫ সালে মডেলিং শুরু করেন। ২০০৭ সালে প্রথম মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর হ্যাঁ-না নাটকে অভিনয় করেন। ২০০৮ সালে ইজ ইকুয়াল টু ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করে তার অবস্থান শক্ত করেন।২০১০ সালে খিজির হায়াত খান পরিচালিত জাগো চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তার বড় পর্দায় অভিষেক হয়। কয়েক বছর বিরতির পর ২০১৩ সালে চলচ্চিত্র পরিচালক শফি উদ্দিন শফি পরিচালিত পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনী চলচ্চিত্রে খলচরিত্রে অভিনয় করেন।

চলচ্চিত্র পরিচালক ও সমালোচক মতিন রহমান ছবিতে তার “কানে লাগে” সংলাপ এবং “একক নাট্য অভিব্যক্তি প্রকাশের” প্রশংসা করেন। ছবিটি ব্যবসায়িক দিক থেকেও সফল হয়। এরপর তিনি চলচ্চিত্রে মনোনিবেশ করেন। সে বছর ভালোবাসা জিন্দাবাদ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। এতে তার বিপরীতে কাজ করেন আইরিন সুলতানা।

আরিফিন শুভ । বাঙালি চলচ্চিত্র অভিনেতা, প্রযোজক ও গায়ক

২০১৪ সালে ইফতেখার চৌধুরীর অগ্নি ছবিতে তিনি একজন বক্সিং খেলোয়াড় ও পেশাদার খুনী ড্রাগন চরিত্রে অভিনয় করেন। একই বছর শাহাদাত হোসেন লিটনের মন বোঝেনা, মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ পরিচালিত তারকাঁটা ছবিতে অভিনয় করেন যা নিয়ে দর্শক ও সমালোচকদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা যায় এবং ভালো ব্যবসা করতে পারে না। আশিকুর রহমান পরিচালিত কিস্তিমাত চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। যা ব্যবসায়িক দিক থেকে বেশ ভালো সাফল্য পায়।

২০১৫ সালে শিহাব শাহীন পরিচালিত ছুঁয়ে দিলে মন, ও ওয়ার্নিং চলচ্চিত্রে কাজ করেন। ছুঁয়ে দিলে মন চলচ্চিত্র দর্শকদের ব্যাপক সাড়া পায় ও এই চলচ্চিত্রের জন্য মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার-এ শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনয়শিল্পী (পুরুষ) বিভাগে তারকা জরিপ পুরস্কার অর্জন করেন ও সমালোচক পুরস্কারের জন্য মনোনীত হন। পাশাপাশি তিনটি বিজ্ঞাপনের মডেল হয়ে কাজ করেন। মিস্টার কুকিজের বিজ্ঞাপনে তার সাথে কাজ করেন নুসরাত ফারিয়া মাজহার, যমুনা গ্রুপের বিজ্ঞাপনে নাদিয়া নদী ও প্রাণ আপের বিজ্ঞাপনে পরীমনি।

২০১৬ সালে তিনি আশিকুর রহমান পরিচালিত অ্যাকশনধর্মীমুসাফির এ অভিনয় করেন যার জন্য তিনি মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার-এ শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনয়শিল্পী এর পুরস্কার পান। অনন্য মামুন পরিচালিত নাট্যধর্মী অস্তিত্ব চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।যা ব্যাপক সাড়া ফেলে এবং দর্শক ও সমালোচকদের কাছে ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া পায়।

ওই বছরের শেষ দিকে মুক্তি পায় জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত বাংলাদেশ-ভারত যৌথ প্রযোজনার নিয়তি। এতে তার বিপরীতে অভিনয় করেন জলি। ২০১৭ সালের শুরুর দিকে মুক্তি পায় জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত পথ-রোমাঞ্চকর রোম্যান্টিক প্রেমী ও প্রেমী এবং শামিম আহমেদ রনি পরিচালিত কমেডিধর্মী ধ্যাততেরিকি। এবং এই ছবিতে শুভর অভিনয় ইতিবাচক সাড়া ফেলে এবং সমালোচকদের কাছেও বহুল প্রশংসিত হয় ।

আরিফিন শুভ । বাঙালি চলচ্চিত্র অভিনেতা, প্রযোজক ও গায়ক

অক্টোবরে মুক্তি পায় দীপংকর দীপন পরিচালিত পুলিশ অ্যাকশন থ্রিলার ঢাকা অ্যাটাক। এতে তাকে ঢাকা মহানগর পুলিশের বোমা নিস্ক্রিয়করণ দলের প্রধান আবিদ রহমান চরিত্রে দেখা যায়। এই ছবিটি বাংলাদেশে ব্যাপক সাড়া ফেলে এবং আন্তজার্তিকভাবে বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি আয় করা ছবি হয়।এছাড়াও মুক্তির অপেক্ষায় আছে মৃত্যপুরী।এছাড়াও এরপর মুক্তি পায় আরিফিন শুভর আহা রে ছবিটি।এই ছবিটি থেকে দর্শকদের কাছ থেকে বেশি ইতিবাচক সাড়া পাওয়া যায় এবং আরিফিন শুভর অভিনয় প্রশংসিত হয়। এই ছবিতে তার বিপরীতে ছিলেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত।এছাড়াও বছরের শেষদিকে মুক্তি পায় রাজনৈতিক থ্রিলার সাপলুডু। যা দর্শকদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলতে সক্ষম হয়। এছাড়াও তার আসন্ন সিনেমাগুলি হলো মিশন এক্সট্রিম ও মিশন এক্সট্রিম ২।

পারিবারিক জীবন

আরিফিন শুভ ২০১৫ সালে অর্পিতা সমাদ্দারকে বিয়ে করেন। অর্পিতা সমাদ্দার পেশায় একজন ফ্যাশন ডিজাইনার। বিয়ের পর থেকে অর্পিতা সমাদ্দার এখন অর্পিতা আরেফিন।

আরও দেখুনঃ

মন্তব্য করুন